বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯
জাতীয়
শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণের মামলার রায়ে হতাশ বিএনপি
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 4 July, 2019 at 8:58 PM
শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণের মামলার রায়ে হতাশ বিএনপিপাবনার ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে গুলি চালানোর মামলার রায়ে হতাশ ও বিক্ষুব্ধ বিএনপি।
বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ আয়োজিত এক চিকিৎসক প্রতিবাদ সমাবেশে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা বলেন।
‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াে মুক্তির দাবি’ শীর্ষক এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, গতকাল পাবনার আদালতে যে রায় দেওয়া হয়েছে। ১৯৯৪ সালের ঘটনা কেন্দ্র করে, প্রায় ২৬ বছর পর এ রায় দেওয়া হয়েছে। সেই রায়ে সকল জাতি বিস্মিত হয়েছে। এটা কোন ধরণের রায়? গুলি কে করেছে, কারা করেছে? সেটা তো মতিউর রহমান রেন্টু তার বইতে বলেই গেছেন। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কালকে ৯ জনকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছে! আর ২৫ জনকে যাবজ্জীবন সাজা দেওয়া হয়েছে! এতে আমরা শুধু হতাশ নই, আমরা বিক্ষুব্ধ। আর এই রায় প্রমাণ করেছে, বাংলাদেশে বিচার ব্যবস্থার কোন স্বাধীনতা নেই।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফরের বিষয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী চীনে গেছেন। খুব ভালো কথা। কার দাওয়াতে গিয়েছেন? একটা অর্থনৈতিক ফোরামের দাওয়াতে গিয়েছেন। চীনের সরকারের দাওয়াতে যান নাই। তবে আমরা খুশি হতাম, যদি দেখতাম রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানকে প্রধান গুরুত্ব দিয়ে উনি চীনের প্রেসিডেন্টের অতিথি পরায়ণ হয়ে কথা বলেন।
নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, আমি বিশ্বাস করি, আজকে যদি সমস্ত পেশাজীবী, কৃষক, শ্রমিক ও রাজনীতিবিদরা এক হয়- তাহলে এই অপশাসন ও দু:শাসনকে সরাতে কোন বেগ পেতে হবে না। বন্ধুরা, ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। আর যারা ঐক্যের বাইরে কথা বলবেন, তারা আসলে দেশ ও বেগম জিয়ার ক্ষতি করবেন। তাই ঐক্য, ঐক্য ও ঐক্যের কোন বিকল্প নেই।
তিনি বলেন, বিচার ব্যবস্থা সম্পূর্ণ রূপে ধ্বংস হয়ে গেছে। জনগণের আর বিচার ব্যবস্থার উপরে কোন আস্থা নেই। বেগম জিয়া ও বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলাগুলোতে প্রমাণ হয়েছে যে, আজকে বিচার ব্যবস্থাকে সস্পূর্ণ রূপে দলীয়করণ করা হয়েছে।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, বেগম খালেদা জিয়া আজ কেনো কারাগারে? একটি মিথ্যা মামলায় সম্পূর্ণ বেআইনী ও অনৈতিকভাবে তাকে জামিন না দিয়ে আটক করে রাখা হয়েছে। এধরণের মামলায় দেখাতে পারবেন না যে, কাউকে জামিন দেওয়া হয়নি। আমাদের চোখের সামনেই আছেন, ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা সাহেব। তার ১৪ বছরের জেল হয়েছিল। কিন্তু তার জামিন হয়ে গেছে। আমাদের দলের ওয়াহাব আকন্দ। তার ৭-৮ বছরে জেল হয়েছিল, তারও জামিন হয়ে গেছে। আর আওয়ামী লীগে মহীউদ্দিন খান আলমগীর এবং মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ারও জামিন হয়েছে। কিন্তু বেগম জিয়ার ক্ষেত্রে শুধু অন্য রকম! কারণ তারা যে একদলীয় শাসন ব্যবস্থার প্রক্রিয়া শুরু করেছে, সেটা বেগম খালেদা জিয়া বাইরে থাকলে সম্ভব হবে না।
অনৈতিক, বেআইনী ও অমানবিকভাবে বেগম জিয়াকে আটক করে রাখা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন ফখরুল।
ড্যাবের আহ্বায়ক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনানের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিম হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft