দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
যশোরে ২০-২৫ লাখ টাকার মাছ মারা যাওয়ায় দিশেহারা চাষী ফরিদুল ইসলাম
স্টাফ রিপোর্টার, চুড়ামনকাটি (যশোর) থেকে :
Published : Thursday, 14 September, 2017 at 12:53 AM
যশোর সেনানিবাস সংলগ্ন বোর্ডক্লাব বাওড়ে ভুল ওষুধ প্রয়োগ করায় ২০-২৫ লক্ষাধিক টাকার মাছ মারাগেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাওড় মালিকের অভিযোগ, স্কয়ার কোম্পানির ওষুধ ব্যবহার করে তার এ অবস্থা হয়েছে। তবে, এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে কোম্পানিটির যশোর জেলার কর্মকর্তারা।
বাওড়ের মালিক যশোর সদর উপজেলার দৌলতদিহি গ্রামের মাছচাষী ফরিদুল ইসলাম ফরিদ জানান, যশোর সেনানিবাস সংলগ্ন বোর্ডক্লাব বাওড় তিন বছরের জন্য লিজ নিয়ে তিনি মাছ চাষ করে আসছেন। সম্প্রতি মাছ মরতে দেখে স্কয়ার কোম্পানির ডা. শংকর কুমারকে জানানো হয়। স্কয়ারের ডাক্তার মাছের মড়ক রোধে মক্সাসিল ভেট ও সিপ্রোসিন ভেট প্রয়োগের পরামর্শ দেন। এরপর কোম্পানির যশোর জেলার সেলস অফিসার আবুল কালাম ওই ওষুধ নিয়ে বাওড়ে যান এবং তাদের নির্দেশ মোতাবেক ঘেরে প্রয়োগ করেন। বাওড়ের মালিক ফরিদুল ইসলাম জানান, ওই ওষুধ প্রয়োগের পরদিন থেকে বাওড়ের মাছ ব্যাপকহারে মরতে থাকে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, মাছ মরার বিষয়টি তিনি স্কয়ার কোম্পানির কর্মকতাদের জানালেও তারা এখন পর্যন্ত বাওড়ে আসেননি।
বাওড় মালিক ফরিদের দাবি,এ পর্যন্ত ২০-২৫ লাখ টাকার মাছ মারা গেছে। ভুল ওষুধ প্রয়োগের কারণেই এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি তার। এ কারণে স্কয়ার কোম্পানির  কর্মকতার বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন মি. ফরিদ।
বাওড়ের গার্ডরা জানান এ বছর এখানে আর মাছ চাষ করা সম্ভব হবে না। এ ব্যাপারে স্কয়ার কোম্পানির যশোর জেলার সেলস অফিসার আবুল কালাম বলেন, তিনি বাওড়ের নিজস্ব ডাক্তারের পরামর্শ মোতাবেক ওষুধ দেন। এখানে তার কোনো দোষ নেই বলে তিনি দাবি করেন। এ ব্যাপারে স্কয়ার কোম্পানির আরেক কর্মকর্তা রেজাউল ইসলাম বলেন,তাদের কোনো ডাক্তার এই ওষুধ প্রয়োগের পরামর্শ দেননি। তার দাবি, ওষুধের কারণে নয়; অন্য কোনো কারণে মাছ মারা যেতে পারে।
এদিকে, এক সাথে ২০-২৫ লাখ টাকার মাছ মারা যাওয়ায় বাওড় মালিক ফরিদুল ইসলাম দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft