দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
কেশবপুরে তিন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অভিনব কায়দার প্রতারণা
লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ
আব্দুল্লাহ আল ফুয়াদ, কেশবপুর (যশোর) ব্যুরো :
Published : Thursday, 14 September, 2017 at 12:53 AM
কেশবপুর শহরের তিনটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যে একই পদ্ধতিতে সংঘবদ্ধ চক্র অভিনব কায়দায় প্রতারণার মাধ্যমে লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জানা গেছে, এই চক্রের দুজন সদস্য কেশবপুর শহরের থানার মোড়ে আল্লার দান টেলিকম সেন্টারে ১ সেপ্টেম্বর দুপুরে মোবাইলে ফিলাক্সি ও বিকাশ করতে আসেন। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে এক ব্যক্তি তার হাতে থাকা ডিম দোকানের মধ্যে ফেলে দেয়। দোকান মালিক ভাংগা ডিম তুলতে গেলে সুকৌশলে ক্যাশ ড্রুয়ার খুলে অন্য ব্যক্তি ৩৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় বলে দোকান মালিক কন্দর্পপুর গ্রামের রানা জানান।
এছাড়াও ১০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় কেশবপুর হাসপাতাল মোড়ের নাহার এন্টারপ্রাইজে দুই বক্তি ভুট্টা ও খুদ ক্রয় করতে এসে  ডিম ফেলে একই পদ্ধতিতে দোকানের ক্যাশ বাক্স খুলে  ১৬ হাজার ৮২৯ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে দোকান মালিক আবুল কালাম আজাদ জানায়।
একই ঘটনার পুণরাবৃত্তি হয়েছে শহরের চাউলপট্টির অগ্রণী ট্রেডার্সে। দোকান মালিক উত্তম সাহা জানান, ১২ সেপ্টেম্বর  রাতে দুই ব্যক্তি চাল কিনতে এসে ডিম ফেলে দিয়ে ঘোরের মধ্যে ফেলে কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই চোখের পলকে দোকানের ক্যাশ বাক্স খুলে ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে চলে যায়।
উল্লেখিত ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত কেউই থানায় লিখিত অভিযোগ করেননি। তবে ঘটনার বিষয়ে পুলিশের নিকট মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে।
থানায় লিখিত অভিযোগ না করার বিষয়ে জানতে চাইলে এক দোকান মালিক জানান, থানায় অভিযোগ করার পরেও অনেক ক্ষেত্রে আসামি ধরা পড়ে না । শুধু ঝামেলা বাড়বে আর কিছু টাকা অহেতুক খরচ হয়ে যাবে। ইতিপূর্বে কেশবপুর শহরসহ উপজেলার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বসত বাড়িতে চুরির ঘটনায় মামলা হলেও চোরেরা ধরা পড়েনি। যে কারণে ক্ষতিগ্রস্ত অনেকেই থানায় অভিযোগ করতে আগ্রহ হারাচ্ছেন।
এবিষয়ে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আনোয়ার হোসেন জানান, ঘটনা শুনেছি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।  




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft