সারাদেশ
নেত্রকোনায় গণধর্ষণ মামলার আরেক আসামি অপু চন্দ্র সরকার গ্রেফতার
নেত্রকোনা সংবাদদাতা :
Published : Wednesday, 13 September, 2017 at 7:18 PM
নেত্রকোনায় গণধর্ষণ মামলার আরেক আসামি অপু চন্দ্র সরকার গ্রেফতারনেত্রকোনায় কিশোরী পান্না আক্তারকে গণধর্ষণ ও পরে আত্মহত্যায় প্ররোচণায় দায়ের করা মামলার আরেক আসামি অপু চন্দ্র সরকারকে (২৩) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে শহরের নেত্রকোনা-ময়মনসিংহ সড়কের মাইক্রোবাস টার্মিনাল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
অপু সদরের ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নের ঠাকুরাকোনা গ্রামের কাজল চন্দ্র সরকারের ছেলে। এর আগে একইদিন ভোরে মামলার প্রধান আসামি একই গ্রামের বাসিন্দা গফুর আকন্দের ছেলে মামুন আকন্দকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন বাংলানিউজে বলেন, গণধর্ষণ ও আত্মহত্যার প্ররোচণায় দায়ের করা মামলাটির সার্বিক তত্ত্বাবধানে রয়েছেন, ময়মনসিংহ রেঞ্জের উপ-মহাপুলিশ পরিদর্শক (ডিআইজি ) নিবাস চন্দ্র মাঝি ও নেত্রকোনা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) জয়দেব চৌধুরী। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দিক নির্দেশনায় মামলা দায়েরের একদিনের মধ্যে মামুন ও অপুকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি আমরা। এ মামলায় আরও আসামি রয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম প্রকাশ করা হচ্ছে না।
সোমবার (০৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সদরের ঠাকুরাকোণা গ্রামে রিকশাচালক চাঁন মিয়ার মেয়ে কিশোরী পান্না আক্তারের (১৪) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ঘটনায় কিশোরীর মা আল্পনা আক্তার জানান, রোববার (০৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গ্রামের এক যুবক কাজের কথা বলে তার মেয়েকে ডেকে নিয়ে যায়। রাত হয়ে গেলেও মেয়ে ফিরে না আসায় তিনি খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। রাত আটটার দিকে এলাকায় একটি ঘরে তিনজন যুবকের কাছ থেকে বিধ্বস্ত অবস্থায় মেয়েকে উদ্ধার করেন তিনি। এসময় তার মেয়ে ধর্ষণের কথা জানিয়ে কান্নাকাটি শুরু করলে যুবকরা ঘটনা প্রকাশ না করতে হুমকি দেয়। একপর্যায়ে প্রতিবেশীদের মধ্যে জানাজানি হলে পরদিন সকালে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে পান্না।
পরে খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ঘটনার আট দিন পর পুলিশ সুপার (এসপি) জয়দেব চৌধুরীর হস্তক্ষেপে সোমবার (১১ সেপ্টেম্বর) থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হলেন, শাহ্ নূর এ আলম (ওসি, তদন্ত)। তিনি জানান, কিশোরীর মরদেহের পুনরায় ময়নাতদন্তের জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft