আন্তর্জাতিক সংবাদ
মিয়ামিতে হারিকেন চলাকালে লুটপাট, গ্রেপ্তার ৫০
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Wednesday, 13 September, 2017 at 6:08 PM
মিয়ামিতে হারিকেন চলাকালে লুটপাট, গ্রেপ্তার ৫০হারিকেন আরমা চলার সময় ৫০ জনেরও বেশি সন্দেহভাজন লুটেরাকে গ্রেপ্তার করেছে যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামি শহরের পুলিশ।
এদের মধ্যে ২৬জন ওয়াল-মার্টের একটি দোকান ভাঙার সঙ্গে জড়িত বলে মঙ্গলবার জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।
শহরটির কর্মকর্তারা রোববার থেকে জারি থাকা সন্ধ্যা ৭টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত কারফিউ এদিন তুলে নিয়েছেন। স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসা শুরু করার পর পুলিশ কমান্ডাররা জানিয়েছেন, নতুন করে যেন কোনো অপরাধ করার সাহস যেন কেউ না পায় তার জন্য পুলিশ কর্মকর্তারা ১২ ঘন্টা শিফটে ২৪ ঘন্টা দায়িত্বরত থাকবেন।
“অপরাধমূলক কর্মকান্ড, লুটতরাজ এবং আমাদের বাসিন্দাদের ওপর অন্যায় সুবিধা নেওয়ার কোনো চেষ্টাই সহ্য করা হবে না; আমি মোটেও মজা করছি না,” মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই বলেন মিয়ামির ডেপুটি চিফ অব পুলিশ লুইজ কাব্রেরা।
শনিবার রাতে মিয়ামি শহরের উত্তরাংশে ওয়াল মার্টের ঘটনাটি ঘটে বলে জানিয়েছেন মিয়ামি-ডাডে পুলিশ বিভাগের মুখপাত্র আলভারো জাবেলেতা।
অন্যান্য লুটের ঘটনায় জড়িত ছিল সন্দেহে সোমবার আরো ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে কেতাদুরস্ত ওয়েনউড এলাকার কাছে মিডটাউন মিয়ামি শপিং কমপ্লেক্সের বিভিন্ন দোকান ভাঙ ভেঙে লুটপাট করার অভিযোগ আনা হয়েছে। তারা জুতা, ব্যাগ ও ল্যাপটপ নিয়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগে বলা হয়েছে।
মিয়ামির মেয়র টমাস রেগালাদো জানান, নিম্নবিত্তদের এলাকা লিবার্টি সিটি এবং লিটল হাইতি থেকে শুরু করে উচ্চবিত্তদের এলাকা হিসেবে পরিচিত ব্রিকেল ও শহরের কেন্দ্রস্থলের বিভিন্ন এলাকাসহ পুরো শহরজুড়েই লুটপাটের চেষ্টা হয়েছে।
ধ্বংসস্তূপ সরানো শেষ না হওয়া পর্যন্ত লুটপাট ঠেকাতে পুলিশ সতর্ক অবস্থানে থাকবে বলেও জানান তিনি।
মিয়ামি পুলিশ লুটপাটে জড়িতসন্দেহে গ্রেপ্তার কয়েকজনের ছবি মঙ্গলবার ফেইসবুকে দিয়ে নিচে ক্যাপশনে লিখেছে, “লুটপাটের চিন্তা করছেন? পরিণতি কি হয়েছে এদের জিজ্ঞেস করুন।”
ঝড়ের কারণে শহরের বেশিরভাগ এলাকা বিদ্যুৎহীন থাকায় যান চলাচল স্বাভাবিক করতে গলদঘর্ম হতে হচ্ছে কর্মকর্তাদের। বিদ্যুৎ না থাকায় রাস্তার মোড়ের ট্রাফিক লাইটগুলো বন্ধ হয়ে আছে, তীব্র বাতাসে উপড়ে পড়া গাছপালাও বিভিন্ন সড়কজুড়ে ছড়িয়ে আছে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft