স্বাস্থ্যকথা
হঠাৎ হাতের কব্জিতে ব্যথা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 7 September, 2017 at 12:51 AM
হঠাৎ হাতের কব্জিতে ব্যথাকব্জির ব্যথা নানা কারণে হতে পারে। আঘাত পাওয়া, দীর্ঘক্ষণ কব্জির মাধ্যমে কোনো কাজ করা, রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস, এসএলই গাউট ও অন্যান্য বাতজাতীয় ব্যথা হতে পারে। বাত জাতীয় রোগে হাতের কব্জিতে ব্যথা হলে তা সাধারণত বিশ্রাম নিলেই কমে যায়। কাজ করলে বেড়ে যায়। কিছুকিছু ক্ষেত্রে কব্জির ব্যথা হলে তা সাধারণত বিশ্রাম নিলেই কমে যায়। সব ক্ষেত্রেই কারণ নির্ণয় করে চিকিৎসা দিতে হয়। এ সম্পর্কে বিভিন্ন ডাক্তার যে মতবাদ দেন তা নিম্নরূপথ
প্রথম আক্রান্ত হাতের কব্জিকে বিশ্রামে রাখতে হবে। যদি কোনো নির্দিষ্ট রোগের কারণে কব্জির ব্যথা হয়ে থাকে তবে তার উপযুক্ত চিকিৎসা দিতে হবে। ব্যথানাশক ওষুধ যেমন প্যারাসিটামল বা এনএস এ আইভি দেয়া যেতে পারে। এনএসএ আইভি ট্যাবলেট মুখ খাওয়া ছাড়াও এনএসএ আইভি জেল আক্রান্ত স্থানে লাগানো যেতে পারে। তবে কোনোভাবেই জেল দিয়ে মালিশ করা যাবে না। ফিজিওথেরাপি হিসেবে আলট্রাসাইড থেরাপি বা ফোনোফনোসিস ব্যবহার করলে বেশ উপকার পাওয়া যায়। অল্প গরম পানিতে হাতের কব্জি ডুবিয়ে নির্দিষ্ট নিয়মে নাড়াচাড়া করালেই আরাম পেতে পারেন। আক্রান্ত কব্জির সাহায্যে কাপড় দেয়া বা মোচড়ানো হাতপাখা দিয়ে বাতাস করা, টেনিস খেলা ইত্যাদি কাজ অর্থাৎ যে কাজ করতে হলে হাতের কব্জি বারবার ঘোরাতে হয় সে ধরনের কাজ করা যাবে না। আক্রান্ত কব্জিকে নাড়াচাড়া করা থেকে কিছুটা রক্ষা করার জন্য বিস্ট ব্যান্ড বা ক্রেপ ব্যান্ড ব্যবহার করা যেতে পারে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft