দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
অসংখ্যবার চেষ্টা করেও সমস্যার সমাধান হয়নি
সোনিয়ার সংসার করা দুরূহ হয়ে উঠছে
কাগজ সংবাদ :
Published : Sunday, 13 August, 2017 at 12:30 AM
মাদকাসক্ত স্বামী, শাশুড়ী আর ননদের অত্যাচারে যশোর সদর উপজেলার আবাদ কচুয়া গ্রামের গৃহবধূ সোনিয়া খাতুনের সংসার করা দুরূহ হয়ে উঠছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়ভাবে অসংখ্যবার এ সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করা হলেও এলাকাবাসী এ কাজে ব্যর্থ হয়েছেন। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে ঐ গৃহবধূ মানবাধিকার সংগঠন রাইটস যশোরের শরণাপন্ন হয়েছেন।
সোনিয়া খাতুন জানিয়েছেন, পাঁচ বছর আগে আবাদ কচুয়ার নিয়ামত ড্রাইভারের ছেলে নাসির ড্রাইভারের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তার উপর নির্যাতন চালিয়ে আসছে তার স্বামী, শাশুড়ী ও ননদেরা। তবে সম্প্রতি অত্যাচারের মাত্রা চরম আকার ধারন করে। তাকে বাড়ির টিউবয়েল থেকে পানি নিতে দেয়া হচ্ছে না। গত ৬ আগস্ট তার স্বামী খাটের স্ট্যা- দিয়ে সোনিয়াকে প্রচ- মারধর করে যাতে তার শাশুড়ি ও ননদের প্রত্যক্ষ ইন্ধন ছিল। যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নেয় সে। হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নিশ্চিত করেন সোনিয়ার নাকে প্রচ- আঘাতের কারণে তার নাক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ আঘাতের বিষয়ে রাইটসকে অবহিত করায় ৯ আগস্ট রাতে সোনিয়াকে পুনরায় মারধর করে বৃষ্টির মধ্যে তার দু’শিশু সন্তান সহ বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়। এ বিষয়ে ঐ রাতেই স্থানীয় ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে মিমাংশার চেষ্টা করলে সোনিয়ার শাশুড়ি ও ননদের স্বেচ্ছাচারিতায় কোন সিদ্ধান্তে পৌছাতে না পেরে সোনিয়াকে তার বাপের বাড়ি নতুনহাট মধ্য কচুয়ায় পৌছে দিয়ে আসেন। সোনিয়া ও তার সন্তানদের ভবিষ্যৎ এখন অনিশ্চয়তার মধ্যে।
এ বিষয়ে রামনগর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমির আলী, ১নং ওয়ার্ড মেম্বার বিদ্যুৎ, ২ নং ওয়ার্ড মেম্বার মিজানুর রহমান, ১নং ওয়ার্ড চৌকিদার আসাদুজ্জামান মিন্টু ও স্থানীয় অধিবাসীরা জানান, গত কয়েক বছর ধরে সোনিয়াকে নিয়ে কয়েকবার শালিস বিচার করা হয়েছে কিন্তু কোন সমাধান হয় নি। তার স্বামী মাদকাসক্ত সে ঢাকায় গাড়ি চালায়। বাড়িতে আসলেই স্ত্রীর উপর নির্যাতন করে।
রাইটস যশোরের নির্বাহী পরিচালক বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক জানান, পাঁচ বছর আগে সোনিয়াকে জীবনমান উন্নয়নের জন্য রাইটস সাহায্য করে। তাকে গরু এবং সেলাই মেশিনও প্রদান করা হয়। তার ননদেরা প্রভাব খাটিয়ে তার কাছ থেকে সেলাই মেশিন নিয়ে নিয়েছে। প্রতিনিয়ত নানা ভাবে সোনিয়াকে নির্যাতন করা হয়। যা কারো কাম্য নয়, রাইটস সোনিয়ার অধিকার আদায়ে সোচ্চার। তার জন্য প্রয়োজনীয় আইনী সহায়তাসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করবে রাইটস।
তবে এ বিষয়ে সোনিয়ার শ্বাশুড়ি বলেন, তার ছেলে মাদকাসক্ত এটা ঠিক তবে সোনিয়াকে মারধর করা হয় কিনা তিনি জানেন না। একই বাড়িতে থাকলেও সোনিয়া এবং তার শাশুড়ি আলাদা খান। পুত্রবধূর উপর নির্যাতন করার কথা অস্বীকার করেন তিনি।
  



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft