জাতীয়
সহায়ক সরকারের রূপরেখা দিচ্ছে বিএনপি জোটের শরিকরা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 12 August, 2017 at 3:22 PM
সহায়ক সরকারের রূপরেখা দিচ্ছে বিএনপি জোটের শরিকরা বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের শরিকরা নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের পৃথক পৃথক রূপরেখা প্রণয়ণ করছে। ইতিমধ্যে কয়েকটি দল তাদের রূপরেখা বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে জমা দিয়েছেন। বাকিরা শিগগিরই জমা দেবে বলে জানা গেছে। গত ২ আগস্ট জোটের শরিকদের বৈঠকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্দেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জোটের নেতাদের কাছ থেকে রূপরেখা চান। বেগম জিয়া লন্ডন থেকে ফিরে জোটের শরিকদের প্রস্তাবগুলো সমন্বয় করে নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা ঘোষণা করবেন।
জোটের কয়েকটি শরিক দলের নেতাদের সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, তাদের প্রস্তাবনায় ভিন্ন ভিন্ন রূপরেখা থাকছে। এর মধ্যে রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনাকে না রেখে ১৯৯০ সালের আদলে নিরপেক্ষ সরকার। দ্বিতীয়ত; প্রধানমন্ত্রীর নির্বাহী ক্ষমতা কমিয়ে সর্বদলীয় সরকার, যাতে প্রধানমন্ত্রী থাকবেন ছুটিতে। গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকবেন টেকনোক্রেটরা। যারা আসবেন বিশিষ্টজনদের মধ্যে থেকে। তৃতীয়ত, সমঝোতার মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন।  যে সব প্রস্তাব জমা পড়েছে তাতে নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের প্রধান হিসেবে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাখা না-রাখার পক্ষে দু’ধরনের মত রয়েছে।
নির্বাহী ক্ষমতা প্রয়োগ না করার শর্তে নির্বাচনকালীন সরকার প্রধান হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাকতে পারেন বলে একটি পক্ষের মত। অন্য প্রস্তাবে বলা হয়েছে, তিন মাসের সহায়ক সরকারের সময় প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে থাকবেন। প্রধানমন্ত্রী স্বপদে বহাল থেকে ছুটিতে থাকার মাধ্যমে নির্বাচন প্রভাবিত না হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হবে। নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের মেয়াদ হবে তিন মাস। ওই সময় সংসদ ভেঙ্গে দেয়া যেতে পারে অথবা অধিকাংশ রাজনৈতিক দলের আপত্তি থাকলে বহালও থাকতে পারে। প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে থাকলে তখন রাষ্ট্রপতি মন্ত্রীদের দিয়ে কাজ করাতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে ‘সর্বদলীয়’ সরকারের আদলে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন হতে পারে।
জোটের শরিক লেবারপার্টির ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেন, আমরা ১২টি প্রস্তাব সম্বলিত একটি রূপরেখা জমা দিয়েছি মির্জা ফখরুলের কাছে। আমাদের প্রস্তাব সাংবিধানিক কাঠামের মধ্যেই রাখা হয়েছে। আমরা নির্বাচনকালীন সময়ে তিন মাসের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ছুটিতে থাকার প্রস্তাব দিয়েছি। একটি মন্ত্রীসভা দাপ্তরিক কাজ করবে। তাদের কোন পরামর্শ থাকলে তা লিখিতভাবে রাষ্ট্রপতিকে জানাবে। রাষ্ট্রপতির নির্দেশ অনুযায়ী সব চলবে।
জোটের শরীক জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. টি আই এম ফজলে রাব্বী বলেন, জোটের দলগুলোর কাছে বিএনপি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা চেয়েছে। আমরা খুব শিগগিরই জমা দেব। ডেমোক্রেটিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন মনি বলেন, আমরা রুপরেখা তৈরি করেছি। আজ-কালের মধ্যে বিএনপির দফতরে জমা দেবো। আমরা প্রস্তাব দিচ্ছি যে, রাষ্ট্রপতিকে প্রধান করে নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকার করতে হবে। সংসদে বিভিন্ন সময় প্রতিনিধিত্বকারী রাজনৈতিক দল থেকে সমসংখ্যক প্রতিনিধি নিয়ে একটি ছোট মন্ত্রীসভা করতে হবে।
শরীক দল জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির সভাপতি অধ্যাপিকা রেহানা প্রধান, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইদ আহমেদ জানান, তারা বেশ কিছু প্রস্তাব রেখেছেন রুপরেখায়।
জোটের একটি শরিক দলের সভাপতি বলেন, বিএনপির আহবানে নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা দিচ্ছি। তবে জোটের দেওয়া রূপরেখার কোন মূল্যায়ন হবে বলে মনে হয় না। কারণ ইতিমধ্যে বিএনপি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা তৈরি এবং চূড়ান্ত করেছে।
বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা বলেন, বেগম জিয়া দেশে ফেরার পর তিনি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রুপরেখা ঘোষণার আগে জোটের শরিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft