দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
মহাকাল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ
অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ
নওয়াপাড়া (যশোর) পৌর প্রতিনিধি :
Published : Tuesday, 18 July, 2017 at 12:06 AM
অভয়নগর উপজেলার মহাকাল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ অধ্যক্ষ হিতেন্দ্রনাথ বোসের বিরুদ্ধে কলেজ ফান্ডের প্রায় ৯লাখ টাকা আত্মসাৎ, ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফিস আদায়সহ নানাবিধ অভিযোগ উঠেছে। কলেজ পরিচালনা কমিটির দুই সদস্য তদন্তপূর্বক অভিযুক্ত ওই অধ্যক্ষের শাস্তির দাবি জানিয়ে যশোর জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
সোমবার যশোর জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, গত ২০১০সালের ১৩ জানুয়ারি অভিযুক্ত হিতেন্দ্রনাথ বোস মহাকাল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে অধ্যক্ষ হিসাবে যোগদান করে বিভিন্ন ধরণের অন্যায়, অপকর্ম, স্বেচ্ছাচারিতা এমনকি অর্থ আত্মসাৎ করে চলেছেন। কলেজের অভ্যন্তরীণ অডিটে কলেজ ফান্ডের বিপুল পরিমাণ টাকা আতœসাতের বিষয়টি ধরা পড়লেও বিভিন্ন অজুহাত খাঁড়া করে দীর্ঘ প্রায় নয় মাসে কোনো ধরণের মিটিং ডাকছেন না। অভিযোগে আরও জানা যায়, সরকারের নীতিমালা না মেনে প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের নিকট থেকে অতিরিক্তি ফিস আদায়, ফরম পূরণের নামে অতিরিক্ত কোচিং ফিসসহ প্রত্যেক সেমিস্টারের সময় প্রবেশপত্র না দেয়ার হুমকি দিয়ে জোরপূর্বক অবৈধভাবে অর্থ আদায় করেন তিনি। বর্তমান কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতির সাথে যোগসাজসে গভর্ণিং বডির অভিভাবক সদস্য কলেজ শাখা হারুন-অর-রশিদকে চা খাওয়ানোর কথা বলে সভাপতির বাসায় নিয়ে পুলিশের ভয় দেখিয়ে একাধিক রেজুলেশনে স্বাক্ষর করিয়ে নেন ওই অধ্যক্ষ। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী হারুন-অর-রশিদ বাদি হয়ে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর অভিযোগ দাখিল করেন। বিষয়গুলো সম্পর্কে কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবদুল গফ্ফার বিশ্বাস জানান- কলেজের বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ ভিত্তিহীন। অভিযোগকারী অরবিন্দু ঘোষ কলেজ অধ্যক্ষের কাছ থেকে এক লাখ টাকা ধার নিয়েছেন, অধ্যক্ষ ওই টাকা চাইলে তিনি বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ করেন।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ হিতেন্দ্রনাথ বোস বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা। দীর্ঘ নয় মাস ধরে কলেজ পরিচালনার মিটিং না ডাকার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কলেজ পরিচালনা পরিষদের সভাপতিকে এককভাবে দায়ী করেন। এবং অভিযোগকারী অরবিন্দু ঘোষ তার কাছ থেকে ৮৯হাজার ৪শ’ টাকা কর্জ নিয়েছেন বলে দাবি করেন। অভিযোগকারী অরবিন্দু ঘোষ জানান- অধ্যক্ষ ও সভাপতি সাহেব তাদের অন্যায় ও অপকর্ম ঢাকার জন্য আমার বিরদ্ধে টাকা কর্জের অজুহাত খাড়া করেছেন। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft