শিক্ষা বার্তা
কালীগঞ্জ এমইউ কলেজের অধ্যক্ষকে আবারো স্বপদে বহাল করতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চিঠি
মিঠু শিকদার,কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) থেকে :
Published : Monday, 17 July, 2017 at 12:37 AM
কালীগঞ্জ এমইউ কলেজের অধ্যক্ষকে আবারো স্বপদে বহাল করতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের চিঠিঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা শহরের মাহতাব উদ্দীন ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ড. মোঃ মাহবুবুর রহমানকে এবার স্বপদে বহাল করার নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। গত ১০ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলরের আদেশে কলেজ পরিদর্শক ডক্টর মোঃ মনিরুজ্জামান স্বাক্ষরিত একটি চিঠি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বরাবর প্রেরণ করেছেন।
একই দিন পৃথক স্মারকে কলেজ পরিদর্শক ডক্টর মোঃ মনিরুজ্জামান স্বাক্ষরিত আরো একটি চিঠি দেন গভর্নিং বডির সভাপতিকে। চিঠিতে বলা হয়েছে কলেজের অধ্যক্ষ ড. মোঃ মাহবুবুর রহমানকে পুনর্বহালের বিষয়ে মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত পত্রের আলোকে গভর্নিং বডির সভায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে বিশ্ববিদ্যালয়কে অবহিত করলেই ¯œাতক (সম্মান) শিক্ষা কার্যক্রমে অধিভুক্তির বিষয়টি বিবেচনা করা হবে।
উল্লেখ্য, অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে হজ্ব ব্রত পালন করতে সৌদি আরবে যান। এরপর সে দেশে ফিরে আসার আগেই ২৬ অক্টোবর নিয়ম বহির্ভূতভাবে কলেজের পরিচালনা পরিষদ তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে। এরপর অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান আইনের আশ্রয় নেন।
এর আগে গত ৩/১২/২০১৬ তারিখে মহামান্য হাইকোর্টের এক আদেশের প্রেক্ষিতে কলেজের গভর্ণিং বডির সভাপতিকে অধ্যক্ষ ড. মোঃ মাহবুবুর রহমানকে স্বপদে পুনর্বহালের এই নির্দেশনা দেয়।
সে সময় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের কলেজ শাখা-৩ এর সহকারী পরিচালক হেলাল উদ্দীন স্বাক্ষরিত একটি পত্রে তাকে স্বপদে পুনর্বহাল করার নির্দেশ দেয়। যা ৬/১২/২০১৬ ইং সংশ্লিষ্ট দপ্তরে ওয়েব সাইডে চিঠিটি প্রকাশ করা হয়। যার স্মারক নম্বর ৭জি-১১১/(ক-৩)/অংশ-২/০৮/৯১৪৩(৬)।  
অভিযোগ রয়েছে, ঐতিহ্যবাহি এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এম এ মজিদ ও কতিপয় দুর্নীতিবাজ শিক্ষক গভর্নিং বডির সভাপতিকে ভুল বুঝিয়ে অধ্যক্ষ ড. মোঃ মাহবুবুর রহমানকে হয়রানি করে আসছে। বিষয়টি নিয়ে আদালত, শিক্ষা অধিদপ্তর ও সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয় একাধিকবার স্বপদে পুনর্বহালের নির্দেশ দিলেও তা অমান্য করে আসছে গভর্নিং বডি এবং দুর্নীতিবাজ ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমএ মজিদ।
সাময়িক বরখাস্ত হওয়া অধ্যক্ষ ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান জানান, আমি হজ্বব্রত পালন করার জন্য ১/০৯/২০১৪ থেকে ৩০/১০/২০১৪ ইং তারিখ পর্যন্ত ছুটি নিয়ে সৌদি আরবে যাই। এরপর হজ্ব পালন শেষে ২৮/১০/২০১৪ ইং তারিখে দেশে ফিরে আসি। তার আগে ২৬/১০/২০১৪ ইং তারিখে কলেজ গভর্ণিং বডি আমাকে সাময়িক বরখাস্ত করে। বরখাস্তের এক সপ্তাহ পর ৪/১১/২০১৪ ইং তারিখে পরিচালনা পরিষদ আমাকে একটি কারণ দর্শানোর চিঠি প্রদান করেন। যে কারনে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য আমি মহামান্য হাইকোর্টে একটি রীট পিটিশন দায়ের করি। যার প্রেক্ষিতে গত ২৩/০৮/২০১৫ ইং তারিখে হাইকোর্ট বরখাস্ত করণ আদেশ প্রত্যাহার করে আমাকে স্বপদে পুনর্বহাল করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।
মাহতাব উদ্দীন ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ জানান, অধ্যক্ষকে পুনর্বহাল করার নির্দেশনার কোন চিঠি পায়নি। এছাড়া এর আগে যে চিঠি এসেছিল তার জবাব দেওয়া হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft