দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
আটক সবুজকে রিমান্ড চেয়ে চালান
বাস শ্রমিক ইমরান হত্যাকান্ডে মামলা পলাতকদের খুঁজছে পুলিশ
বিশেষ প্রতিনিধি :
Published : Sunday, 16 July, 2017 at 9:58 PM
যশোরে চিহ্নিত দুবৃর্ত্তদের ছুরিকাঘাতে বাস শ্রমিক ইমরান হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ঘটনার পরপরই আটক সিটি কলেজপাড়ার সবুজসহ অজ্ঞাত আরও ৪/৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। আটক সবুজকে রিমান্ড চেয়ে আদালতে চালান দেয়া হয়েছে। অন্য অভিযুক্তদের খুঁজতে সংশ্লিষ্ট এলাকায় অভিযান চলছে।
নিহতের মামা ফতেপুরের আবুল কালাম আজাদ এজাহারটি দাখিল করেছেন। পূর্ব শত্রুতায় পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।
এজাহারে বলা হয়েছে, যশোরের ফতেপুরে মামাবাড়ি বসবাসকারী আব্দুল জলিলের ছেলে বাসের হেলপার ইমরান ও তার দুই সহকর্মী সাজ্জাদ এবং আল আমিন ১৫ জুলাই রাতে নড়াইল বাসস্ট্যান্ড এলাকার বাবুর দোকানের সামনে গল্প করছিল। এসময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কেশবপুরের আমিনপুরের আব্দুল মালেকের ছেলে ইয়াবা কারবারী সবুজসহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন তাদের উপর হামলা চালায়। তাদের এলোপাতাড়ি ছুিরকাঘাতে খুন হয় ইমরান।
স্থানীয় সূত্র জানায়, নড়াইল বাসস্ট্যান্ডে ইয়াবা সেবন ও বিকিকিনির সাথে জড়িত সবুজ, রহিম, অপু ও রঞ্জু। নিহত ইমরানের সাথে তাদের বাক-বিতন্ডা ও একে অপরকে দেখে নেয়ার হুমকি ও পাল্টা হুমকি দেয়া হচ্ছিল। এ বিষয়টি বাসস্ট্যান্ড এলাকার অনেকেরই জানা ছিল। এরই এক পর্যায়ে ১৫ জুলাই গাছিদা, রামদা ও কয়েকটি ধারালো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দিতে থাকে সবুজ, রহিম, অপু ও রঞ্জু। আর এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে ইমরানকে। ইমরানের সহকর্মী গুরুতর জখম আল আমিন ও সাজ্জাদকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে নেয়া হয়। ঘটনার পরপরই জনতা আটক করে পালের গোদা সবুজকে। তাকে পুলিশে দেয়ার পর অন্যরা গা ঢাকা দেয়।
সূত্রের দাবি, একটি বিশেষ সেল্টারে থেকে ওই চক্রটি নড়াইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ইয়াবা, ফেনসিডিল বিকিকিনি কারবার চালায়। এতে বাধ সাধায় ইমরানের উপর ক্ষিপ্ত হতে পারে সবুজ গং। এ ব্যাপারে জোরালো তদন্ত দাবি শ্রমিক নেতাদের।
এদিকে, হত্যাকান্ডের ব্যাপারে যশোর কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম আজমল হুদা জানান, ইয়াবা সেবন ও বিকিকিনি দ্বন্দ্বে ইমরান খুন হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে তথ্য আসলেও আরও কয়েকটি দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছ থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য আসতে পারে। ঘটনায় জড়িত অন্যদের আটক করা হবে। এজাহারে সবার নাম না আসলেও পুলিশি তদন্তে জড়িতরা সনাক্ত হয়ে গেছে।




আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft