স্বাস্থ্যকথা
দীর্ঘদিন ব্যথানাশক ওষুধ নয়!
কাগজ ডেস্ক :
Published : Friday, 14 July, 2017 at 6:49 PM
দীর্ঘদিন ব্যথানাশক ওষুধ নয়!আমরা প্রতিটি মানুষই জীবনে কোনো না কোনো ব্যথায় আক্রান্ত হয়ে ব্যথানাশক ওষুধ খেয়ে থাকি। সাময়িকভাবে ব্যথানাশক ওষুধ তেমন ক্ষতিকর না হলেও দীর্ঘদিন ব্যথানাশক ওষুধ খাওয়া মারাত্মক ক্ষতিকর। অনেকে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াই দিনের পর দিন, বছরের পর বছর ব্যথানাশক ওষুধ খেয়ে চলেছে। তাছাড়াও যারা বিভিন্ন আরথ্রাইটিস বা বাত রোগে অথবা ডিজেনারেটিভ ডিজিজ বা বয়সজনিত হাড়ের ক্ষয় রোগ যেমনথ রিউমাটয়েড আরথ্র্রাইটিস, এনকাইলোজিং স্পনডাইলাইটিস, অস্টিওআরথ্রাইটিস, স্পনডাইলোসিস, ইত্যাদি রোগে ভুগছেন, তাদের নিয়মিতই কোনো না কোনো ব্যথানাশক ওষুধ খেতে হয়, না খেলে ব্যথার তীব্রতা সহ্য করতে পারেন না। কিন্তু দীর্ঘদিন ব্যথানাশক ওষুধ খেলে আমাদের শরীরের গুরুত্বপূর্ণ কিছু অঙ্গ যেমনথ কিডনি, লিভার, পাকস্থলী ইত্যাদির মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে এমনকি বিকলও হয়ে যেতে পারে। যার ফলে রোগীর বিভিন্ন ধরনের উপসর্গ দেখা দিতে পারে, যেমনথ তীব্র পেটে ব্যথা, পায়খানার সঙ্গে রক্ত যাওয়া, রক্তবমি হওয়া, রোগীর পা ও মুখ ফুলে যাওয়া, চোখের নিচে পানি জমা, প্রসাব কম হওয়া বা প্রসাব বন্ধ হয়ে যাওয়া ইত্যাদি। একাধিক পরিসংখ্যানে দেখা যায় বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে ব্যথানাশক ওষুধ বা এনএসআইডিজনিত আলসার ও কিডনি রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে চলেছে যা এখনই প্রতিরোধ না করলে মহামারী আকার ধারণ করতে পারে। তাই যারা বিভিন্ন রকম ব্যথা-বেদনা বা আরথ্রাইটিস বা বাত রোগে ভুগছেন যেমনথ হাঁটু, ঘাড়, কোমর ও কাঁধে ব্যথায় আক্রান্ত, তারা ব্যথানাশক ওষুধের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াবিহীন আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞানের অন্যতম শাখা ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার মাধ্যমে ব্যথামুক্ত জীবনযাপন করতে পারবেন। এখানে একজন বিশেষজ্ঞ ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক রোগীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ ও রোগ নির্ণয় করে, সেই অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা নির্ধারণ করে থাকেন যার মধ্যেথ হাইড্রোথেরাপি, ম্যানুয়াল থেরাপি, ইলেকট্রোথেরাপি ও থেরাপিউটিক ব্যায়াম ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। এই ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার মাধ্যমে রোগীর ব্যথা কমে আসে, জয়েন্ট বা অস্থি-সন্ধির নড়াচড়া সহজ হয়, মাংসপেশির কার্যক্ষমতা বাড়ে ও রোগী স্বাভাবিক চলাচল করতে পারে। অতএব ব্যথার ওষুধ পরিহার করে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা নিন তাহলে ব্যথার ওষুধের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft