জাতীয়
তরুণদের স্মার্টকার্ডের জন্য নতুন দাতা সংস্থায় ইসি
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 19 June, 2017 at 9:05 PM
তরুণদের স্মার্টকার্ডের জন্য নতুন দাতা সংস্থায় ইসি  দশে বর্তমানে ভোটার আছে ১০ কোটি ২০ লাখের মতো। কিন্তু উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে ৯ কোটি ভোটারকে। কেননা, স্মার্টকার্ড প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের ওবার্থার কোম্পানির সঙ্গে যখন চুক্তি করে নির্বাচন কমিশন (ইসি), তখন ভোটার সংখ্যা ছিল ৯ কোটির মতো। দাতা সংস্থা বিশ্বব্যাংকও ৯ কোটি ভোটারকেই স্মার্টাকার্ড দিতে অর্থ সহায়তা দিয়েছিলো।
ইসি সূত্র জানিয়েছে, ২০১১ সালে ‘আইডেন্টিফিকেশন সিস্টেম ফর অ্যানহেন্সিং অ্যাকসেস টু সার্ভিস (আইডিইএ)’ বা স্মার্টকার্ড প্রকল্পের বিপরীতে ১৭০ মিলিয়ন ডলার দেওয়ার চুক্তি করে দাতা সংস্থাটি। যার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামি ৩১ ডিসেম্বর।
কয়েক দফা প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানোর পর এবার আর বাড়ছে না। ফলে বিশ্বব্যাংকের দেওয়া অর্থের পুরোটা ব্যবহৃত না হলে অবশিষ্ট টাকা ফেরত যাবে।
তাই নতুন ভোটারদের স্মার্টকার্ড সরবরাহে নতুন দাতা সংস্থার দ্বারস্থ হচ্ছে নির্বাচন কমিশন।
ইসি’র সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ্  বলেন, ‘বিশ্বব্যাংকের কাছে আমাদের প্রস্তাব থাকছে, আইডিইএ প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানোর। যদি তারা না বাড়ায়, তবে এটি আগামি ডিসেম্বরেই শেষ হচ্ছে। কিন্তু এনআইডি সেবা তো অব্যাহত রাখতে হবে। তাই ইউএনডিপি ও তার সহযোগী সংস্থার সঙ্গে আলোচনা চলছে। তাদের সঙ্গে আগামি পাঁচ বছরের জন্য আরেকটি চুক্তি করতে চাই। এতে আরও দুই-আড়াই কোটি ভোটারকে আমরা স্মার্টকার্ড দিতে পারবো’।
ইসি সচিবালয় সূত্র জানায়, আজ মঙ্গলবার ইউএনডিপি ও তার সহযোগী সংস্থাগুলোর সঙ্গে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে বৈঠক রয়েছে। বেলা ১১টায় ইসি’র সভাকক্ষে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।
বৈঠকের কার্যপত্রে স্মার্টকার্ড ছাড়াও আলোচনার বিষয় হিসেবে রয়েছে জাতীয় নির্বাচনে সহায়তাও। এ ক্ষেত্রে ইউএনডিপি’র কাছে ১০ ধরনের সহায়তা চায় নির্বাচন কমিশন। এর মধ্যে রয়েছে ভোটদানের গোপন স্মার্টকক্ষ, স্মার্ট সিল, স্মার্ট কালি, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ইত্যাদি।
ইসি’র সচিব আব্দুল্লাহ্ বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমরা প্রস্তাব দিয়েছি। মঙ্গলবার সে আলোচনাকে আরো এগিয়ে নেওয়া হবে’।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft