শিক্ষা বার্তা
নওগাঁর মান্দায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষ সংকট পরিত্যাক্ত কক্ষে পাঠদান
মোফাজ্জল হোসেন, নওগাঁ প্রতিনিধি :
Published : Sunday, 14 May, 2017 at 7:01 PM
নওগাঁর মান্দায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষ সংকট পরিত্যাক্ত কক্ষে পাঠদাননওগাঁর মান্দা উপজেলার ৮৮ নং বিলবয়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শ্রেণি কক্ষের সংকটের কারণে পাশের ক্লাব ঘরের পরিত্যাক্ত ঝুঁকিপূর্ণ কক্ষে চলছে পাঠদান। কক্ষ যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা প্রকাশ করছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষকগন, ছাত্র-ছাত্রী, অবিভাবক ও সচেতন মহল। সংশ্লিষ্ট বিভাগকে বার বার অবগত করেও কোন কাজ হয়নি বলে জানান শিক্ষক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ভারতী রানী জানান, বিদ্যালয়টি ১৯০০ সালে স্থানীয় শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিদের হাতে প্রতিষ্ঠিত। প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে মাটির তৈরি কয়টি কক্ষে শুরু হয় পাঠদান কার্যক্রম। পরবর্তি সময়ে বিদ্যালয়ে ৪কক্ষ বিশিষ্ট একতলা ভবন তৈরি করা হয় কয়েক দশক পূর্বে যা শিক্ষার্থীদের তুলনায় অপ্রতুল। ৪কক্ষের মধ্যে ১টিতে চলে অফিসের কার্যক্রম। কক্ষের সংকটের কারণে পাশের ক্লাব ঘরের পরিত্যাক্ত কক্ষে পাঠদান কার্যক্রম চালাতে বাধ্য হচ্ছেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিদ্যালয়টি বন্যাকবলিত এলাকায় অবস্থিত। এটি ফকিন্নী নামক খালের উপড় অবস্থিত হওয়ায় প্রতি বর্ষা মৌসুমে বিদ্যালয়ের ছোট উঠানে পানিতে বদ্ধ হয়ে যায়। তখন পানির ভয়ে অনেক শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে আসে না। বিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন যাবত প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ে মোট শিক্ষার্থী ১৬৬জন যার মধ্যে প্রতিদিন সব শ্রেণি মিলে প্রায় ১৫০জন শিক্ষার্থী পাঠগ্রহণ করছে। আধুনিক সময়ে আধুনিকতার ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত অজোপাড়া গ্রামের এই বিদ্যালয়টি। বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: জাহাঙ্গির আলম জানান, আমার ইউনিয়নের মধ্যে এই বিলবয়রা বিদ্যালয়টির অবস্থা খুবই বেহাল। অজোপাড়া গ্রামের এই বিদ্যালয়ে এখনো পর্যন্ত কোন আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি এটা আমাদের জন্য খুবই দুঃখজনক একটি বিষয়। তবে বিদ্যালয়ের এহেন অবস্থা সম্পর্কে একাধিকবার আমি উপড়মহলকে লিখিত ভাবে জানিয়েও আজ পর্যন্ত কোন ফল পাওয়া যায়নি। তবে সরকারি ভাবে অনুদান পাওয়া না গেলে আধুনিক মান সম্পন্ন বিদ্যালয় করা সম্ভব নয়। এই বিষয়ে মান্দা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: আওরঙ্গজেব হোসেন জানান, এই বিদ্যালয়ের সমস্যা চিহ্নিত করে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জানানো হয়েছে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft