শিক্ষা বার্তা
যশোরের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ডিজিটাল ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে আনার উদ্যোগ
পাঠদান পদ্ধতি হতে হবে আনন্দ দায়ক : শিক্ষা সচিব
কাগজ সংবাদ :
Published : Sunday, 19 March, 2017 at 12:45 AM, Update: 18.03.2017 10:36:31 PM
পাঠদান পদ্ধতি হতে হবে আনন্দ দায়ক : শিক্ষা সচিবশিক্ষা সচিব সোহরাব হোসেন বলেছেন, যারা দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছেন তাদের স্বপ্ন পূরণে সকলকে কাজ করতে হবে। সবারই প্রয়াস হতে আগামী প্রজন্মের জন্য সুন্দর একটি দেশ গড়া। সে জন্য শিক্ষার্থীদের সু নাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য পাঠদান পদ্ধতি হতে হবে আনন্দদায়ক। পাশাপাশি নকল ও প্রশ্নপত্র ফাঁস করে শিক্ষার্থীদের ধ্বংস করে দেবার অপচেষ্টাকারীদের বিরুদ্ধে সবাইকে স্বোচ্চার হতে হবে। গতকাল যশোর কালেক্টরেট সভা কক্ষে শিক্ষা ব্যবস্থায় ইনোভেশনের মাধ্যমে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন শীর্ষক কর্মশালার প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বেলা দশটায় যশোর কালেক্টরেট সভা কক্ষে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন যশোর জেলা প্রশাসক ড. মোঃ হুমায়ুন কবীর। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সেন্টারনিক টেকনোলজি লিমিটেডের ভাইস চেয়ারম্যান তানভীর সাদিক। কর্মশালার শুরুতে যশোরের শিক্ষা ব্যবস্থাপনার উপর তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করেন জেলা শিক্ষা অফিসার আমিনুল ইসলাম টুকু।
সভায় শিক্ষা সচিব যশোর সদর এবং কেশবপুরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান ও ম্যানেজিং কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে খোলামেলা কথা বলেন এবং বিভিন্ন সমস্যার কথা শোনেন।
মতবিনিময় সভায় নতুনহাট কলেজের সভাপতি ও সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সেতারা খাতুনের প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষা সচিব শিক্ষা সচিব সোহারাব হোসেন আরো বলেন বিভিন্ন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করা কঠিন হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, ফাঁস হওয়া প্রশ্নে পরীক্ষা দেওয়া মানে নিজের জীবনকে ধ্বংস করে দেওয়া। তাই শিক্ষার্থীদের এ ঘৃণ্য কাজে সম্পৃক্ত না হতে শিক্ষা সচিব শিক্ষক ও অভিভাবকদের প্রচার চালাতে আহবান জানান। এ কথা বলেন। এসময় শিক্ষা সচিব নোট গাইড বন্ধে দ্রুত কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানান।
স্কুল-কলেজের ওয়েব সাইট চালানো, ইন্টারনেট ব্যবহার, ডিজিটাল হাজিরাসহ প্রযুক্তির নানা ব্যবহারে কোন টেশনিশিয়ানের সাপোর্ট না থাকায় নানা সমস্যা হচ্ছে বলে শিক্ষা সচিবের দৃষ্টিতে আনেন যশোর সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. এম হাসান সরোওয়ার্দী। শিক্ষা সচিব টেশনিশিয়ান নিয়োগে আপাতত কোন সিদ্ধান্ত নেই উল্লেখ করে স্ব স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় এ সাপোর্ট দেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন এমএম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান, যশোরের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ পরিচালক মাজেদুর রহমান খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আসাদুল হক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) পারভেজ হাসান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পংকজ ঘোষ, কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরীফ রায়হান কবির, যশোর সরকারি সিটি কলেজের অধ্যক্ষ আবু তোরাব, যশোর শিক্ষা বোর্ড স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল মহিবুল আকবার মজুমদার, যশোর কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তাক হোসেন শিম্বা, নতুনহাট কলেজের অধ্যক্ষ মোয়াজ্জেম হোসেন, জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক গোলাম আযম, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিখিল রঞ্জণ চক্রবর্ত্তী, কেশবপুর পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোতার হুসাইন, সদর উপজেলার আমদাবাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মুনসুর আলী  প্রমুখ। 



আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft