শিক্ষা বার্তা
শহীদ মশিয়ূর রহমান ডিগ্রি কলেজে অভিভাবক সমাবেশ, নবীণবরণ ও বিদায়ী সংবর্ধনা
শিক্ষার উন্নয়নই আ’লীগ সরকারের মূল দর্শন : এমপি মনির
কাগজ সংবাদ :
Published : Thursday, 16 March, 2017 at 12:26 AM
শিক্ষার উন্নয়নই আ’লীগ সরকারের মূল দর্শন : এমপি মনিরমহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর এবং মন্ত্রী শহীদ মশিয়ূর রহমানের স্মৃতি বিজড়িত শিক্ষাঙ্গন ঝিকরগাছা শহীদ মশিয়ূর রহমান ডিগ্রী কলেজ। ১৯৬৮ সালের জুলাই মাস থেকে যে প্রতিষ্ঠানের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপিত হয়েছিল ঝিকরগাছা কলেজ নামে। কয়েকজন খ-কালীন শিক্ষক আর ২২ জন ছাত্র নিয়ে শুরু হয় পদযাত্রা। ১৯৬৮-৬৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে কলেজটি উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ হিসেবে যশোর শিক্ষাবোর্ডে প্রথম স্বীকৃতি লাভ করে।
মহান মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে গণপরিষদ সদস্য, ঝিকরগাছার কৃতী সন্তান আবুল ইসলাম (সাবাশ চেয়ারম্যান) প্রতিষ্ঠানটির দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। গণ মানুষের প্রাণের দাবিতে কলেজটির নাম পরিবর্তিত হয় শহীদ মশিয়ূর রহমান কলেজ নামে। ১৯৭১ সালে কলেজটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বীকৃতি লাভ করে ডিগ্রি পর্যায়ে উন্নীত হয়। ১৯৮৫ সালে বিজ্ঞান বিভাগের অনুমোদন প্রাপ্তির পর কলেজটি পূর্ণাঙ্গ কলেজে উন্নীত হয়। গেল বছর ২’শ ৭৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে জাতীয়করণের জন্য চুড়ান্ত তালিকাভূক্ত হয় বিদ্যাপীঠটি। সেই থেকেই উৎসবের আমেজ প্রতিষ্ঠানে। সেই ধারাবাহিকতায় গতকাল অভিভাবক প্রবীণ নবীণ মিলে তৈরী হয়েছিল এক আনন্দঘন পরিবেশ। প্রাণে প্রাণে মিলন মেলার মধ্যমনি ছিলেন যশোর-২ (ঝিকরগাছা-চৌগাছা) আসনের সংসদ সদস্য ও কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি এড.মনিরুল ইসলাম মনির।  
শহীদ মশিয়ূর রহমান ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ পাভেল চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসাবে কথামালায় অংশ নেন যশোর-২ (ঝিকরগাছা-চৌগাছা) আসনের সংসদ সদস্য এড.মনিরুল ইসলাম মনিরের পতœী ফারদিয়া রহমান এ্যানী, ঝিকরগাছা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা রশিদুর রহমান রশিদ, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ও ঝিকরগাছার শহীদ মসিয়ূর রহমান ডিগ্রি কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা ওলিয়ার রহমান, প্রতিষ্ঠানের সাবেক অধ্যক্ষ মির্জা ইলিয়াজ আলী বেগ।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন কলেজের সাবেক উপাধ্যক্ষ চৌধুরী হাফিজুর রহমান, এমএম কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক ও শহীদ মশিয়ূর রহমান ডিগ্রি কলেজের প্রাক্তন ছাত্র মেহেদী হাসান, এইচএসসি’র বিদায়ী শিক্ষার্থীর পক্ষে রমজান আলী আশা, প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী তাসনিম হক মৌলী।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠান আয়োজক কমিটির আহবায়ক ব্যবস্থাপনা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক এটিএম লতিফুর রহমান। সঞ্চালনায় ছিলেন অনুষ্ঠান আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রভাষক মনিরুজ্জামান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে যশোর-২ (ঝিকরগাছা-চৌগাছা) আসনের সংসদ সদস্য এড.মনিরুল ইসলাম মনির বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ১৯৭৩ সালে সারাদেশের ৩৭ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করেন। ওই সময় ৮২ হাজার শিক্ষক সরকারি বেতন-ভাতার সুযোগ পান। এতে শিক্ষার মান কয়েক বছরের মধ্যে আমুল পরিবর্তন হয়। বঙ্গবন্ধুর সেই ধারাবাহিকতায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালে আরও ২৬ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করেন। কারণ শিক্ষার উন্নয়নই আ’লীগ সরকারের মূল দর্শন। গতকাল ঝিকরগাছার শহীদ মশিয়ূর রহমান ডিগ্রি কলেজের অভিভাবক সমাবেশ, নবীণবরণ ও বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় কলেজ ক্যাম্পাসে আয়োজিত অভিভাবক সমাবেশে এড.মনিরুল ইসলাম শহীদ মশিয়ূর রহমান কলেজ সম্পর্কে বলেন, ঝিকরগাছাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি উপজেলায় একটি সরকারি কলেজ। কারণ এ অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা উচ্চ শিক্ষার জন্য উপজেলার বাইরে যেতে হয়। সেই দাবি ও চাহিদার আলোকে বর্তমান জনবান্ধব সরকার ঝিকরগাছা উপজেলার শহীদ মশিয়ূর রহমান ডিগ্রি কলেজকে জাতীয়করণে তালিকাভূক্ত করেছে। এ প্রতিষ্ঠানটি জাতীয়করণ হলে এলাকার হাজার হাজার মানুষ উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পাবে।    
তিনি আরও বলেন, গত বছর শিক্ষা সেক্টরে বাজেট ছিল ৩২ হাজার কোটি টাকা। এবছর প্রধানমন্ত্রী তা বাড়িয়ে ৫৮ হাজার কোটি টাকা করেন। বাংলাদেশের মত ক্ষুদ্রদেশে এ ধরনের বাজেট ঘোষণা অনেকটা সাহসিকতার পরিচয়।
অনুষ্ঠানে  প্রাক্তন শিক্ষক (উপাধ্যক্ষ) হাফিজুর রহমান চৌধুরী, সহকারী অধ্যাপক এসএম বজলুর রহমান, প্রধান অফিস সহকারী ফরিদ আহমেদ, অফিস সহকারী নূর হোসেন ও মরহুম শহিদুল ইসলামের পরিবারের কাছে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft