শিক্ষা বার্তা
নীলক্ষেতে গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 13 March, 2017 at 4:08 PM
নীলক্ষেতে গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধগার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণাঙ্গ ইনস্টিটিউট করার দাবিতে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীরা রাজধানীর নীলক্ষেত মোড়ে সড়ক অবরোধ করেছেন। সোমবার বেলা ১১টায় শিক্ষার্থীরা পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী ওই সড়কে সমবেত হন।
শিক্ষার্থীদের দাবি, শুধু আজিমপুরের সরকারি গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ নয়, দেশের সব গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজকে একত্র করে একটি ইউনিট করতে হবে।
সড়কে নেমে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।
শিক্ষার্থীরা জানান, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করবেন। একই দাবি নিয়ে কলেজটির শিক্ষার্থীরা শনিবারও নিউমার্কেট মোড় সড়ক অবরোধ করেছিলেন।
এদিকে সড়ক অবরোধের কারণে মিরপুর রোড, আজিমপুর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও নিউমার্কেটের ১ নম্বর গেটের পাশের রাস্তায় সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দুর্ভোগে পড়ে সাধারণ মানুষ।
এ বিষয়ে নিউমার্কেট থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) আবদুস সালাম জানান, শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে ওই স্থান থেকে সরানোর চেষ্টা চলছে।
এদিকে শিক্ষার্থীদের এই দাবির বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছিল, এখনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পৃথক অনুষদ হিসেবে যাত্রা শুরু করতে পারছে না সরকারি গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ। আইনি জটিলতার কারণে চলতি বছর এ দাবি পূরণের কোনো সুযোগ নেই। তবে আইনি জটিলতা কাটিয়ে ভবিষ্যতে ঢাবির পৃথক অনুষদ হিসেবে এ কলেজের যাত্রা শুরু করানো যেতে পারে।
মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, এ জন্য ছাত্রীদের অন্তত আরো এক বছর অপেক্ষা করতে হবে।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়টি মন্ত্রণালয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখছে। সময়মতো এ বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত জানানো হবে।
রাজধানীর নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থিত গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজটি পঞ্চাশ বছরের বেশি পুরোনো। দেশের অন্য সব সরকারি কলেজ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হলেও এ কলেজটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত। এটি আমেরিকার ফোর্ড ফাউন্ডেশন ও ওকলাহামা স্টেট ইউনিভার্সিটির সহায়তায় স্থাপিত হয়। প্রথমে গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি উপাদানকল্প কলেজ হিসেবে কার্যক্রম শুরু করে।
১৯৬১ সাল থেকে কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক ও স্নাতক এবং ১৯৬৩ সাল থেকে স্নাতকোত্তর পর্যায়ে পাঠদান শুরু হয়। ১৯৭৩ সালে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ের পাশাপাশি স্নাতক সম্মান (গার্হস্থ্য অর্থনীতি) কোর্স চালু হয়। ১৯৮৫-৮৬ শিক্ষাবর্ষে সমন্বিত গার্হস্থ্য অর্থনীতি থেকে পাঁচটি বিভাগে পাঁচটি সম্মান কোর্স চালু করা হয়।
বিভাগগুলো হলো- খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান, সম্পদ ব্যবস্থাপনা ও এন্টারপ্রেইনরশিপ, শিশু বিকাশ ও সামাজিক সম্পর্ক, শিল্পকলা ও সৃজনশীল শিক্ষা এবং বস্ত্র পরিচ্ছদ ও বয়ন শিল্প। ২০০২-০৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান কোর্সে অনুরূপ চার বছর মেয়াদি স্নাতক সম্মান কোর্স এবং এক বছর মেয়াদি স্নাতকোত্তর কোর্স চালু করা হয়।
অধিভুক্ত এ কলেজটিকে গত সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পৃথক অনুষদ হিসেবে চালু করার দাবি জানিয়ে আসছেন ছাত্রীরা।



আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft