দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
বেইলি ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, ১০ রুটে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ
চন্দন দাস/ফরিদুজ্জামান/আজিজুল ইসলাম,সীমাখালি থেকে :
Published : Monday, 13 February, 2017 at 9:17 PM
বেইলি ব্রিজ ভেঙে ট্রাক নদীতে, ১০ রুটে সড়ক যোগাযোগ বন্ধযশোর-মাগুরা মহাসড়কের সীমাখালী ব্রিজ ভেঙে পড়ে তিনটি ট্রাকসহ ব্রিজের মাঝখানের অংশ চিত্রা নদীতে মিশে গেছে। এ ঘটনায় ট্রাকের চালক ও হেলপারসহ তিনজন আহত হয়েছেন। সোমবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে ্এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, সকাল সোয়া ১০টার দিকে পণ্যবোঝাই তিনটি ট্রাক বেইলি ব্রিজ পার হচ্ছিল। এ সময় ব্রিজটি ভেঙে ট্রাক তিনটি নদীতে পড়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত তিনজনকে উদ্ধার করে। ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় মাগুরা, যশোর, নড়াইল খুলনা, ঢাকা, বরিশালসহ ১০টি রুটে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। মহাসড়কের দুই পাশে শত শত গাড়ি আটকা পড়েছে।
শালিখার ইউএনও সুমি মজুমদার জানান, ১০ টন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন সেতুটিতে ১৫ থেকে ২০ টন ওজনের মালবোঝাই ট্রাক চলাচল করায় এটি ভেঙে পড়েছে।
দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যশোরের অংশে বাঘারপাড়া পুলিশ, উপজেলা চেয়ারম্যান মশিয়ূর রহমান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সবদুল হোসেন খানসহ শ’ শ’ মানুষ এবং অপর অংশে মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম, শালিখা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমি মজুমদার, দমকল বাহিনীর লোকজন উপস্থিত হন। ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা। তবে বিকল্প হিসেবে খুলনা, যশোর, সাতক্ষীরাসহ বিভিন্ন রুটের যানবাহন ঝিনাইদহ হয়ে ঢাকা ও অন্য স্থানে প্রবেশ করছে।
বারবাজার হাইওয়ে থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, সকাল সোয়া ১০টার দিকে ব্রিজটি ভেঙে পড়ে। ওইসময় ঢাকা থেকে যশোরমুখি একটি পাথর বোঝাই (ঢাকামেট্রো-২০-৩০৭০) এবং একটি ত্রিপলে ঢাকা ট্রাক (ঢাকামেট্রো-২০-১৯৬৯) এবং যশোর থেকে একদিনের মুরগির বাচ্চাবাহী একটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকামেট্রো-জ-১১-৩৮১৬) ব্রিজের ভাঙা অংশে রয়েছে।
স্থানীয় ব্যবসায়ী জুলফিকার আলী জানান, বিকট শুনে তারা এগিয়ে দেখেন ব্রিজটি ভেঙে দু’টি ট্রাক ও একটি কাভার্ডভ্যান নিচে পড়ে আছে। চিৎকার শুনে তারা যানবাহনের ভেতর থেকে  বাঘারপাড়া উপজেলার ছোটখুদড়া এলাকার মিঠু ও পাঠানপাইকপাড়া এলাকার জয়নালকে টেনে বের করেন। আহত দুজনের মধ্যে একজন বাইসাইকেল এবং অন্যজন হেঁটে ব্রিজ পার হচ্ছিল। আহতদের তাদের যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাঘারপাড়া থানার ওসি ছয়রুদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘এখন পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণটা জানা সম্ভব হয়নি। ঘটনাস্থলে একজন পুলিশ অফিসারের নেতৃত্বে ফোর্স পাঠানো হয়েছে’।
শালিখা থানার ওসি রবিউল ইসলামের বরাত দিয়ে মাগুরা প্রতিনিধি জানান, সোমবার সাকাল সাড়ে ১০টার দিকে দশ চাকার দুটি ট্রাক ও একটি পিকআপসহ সীমাখালী ব্রিজের পার হওয়ার সময় দেবে যায়। এতে ব্রিজের উপর থাকা এক সাইকেল আরোহীসহ দুইজন আহত হন। তাদের চিকিৎসার জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় কেউ নিহত হয়নি।
মাগুরা সড়ক ও জনপথ  বিভাগের সহকারি প্রোকৌশলী খলিলুর রহমান জানান, মাগুরা-যশোর সড়কের সীমাখালী ব্রীজ দিয়ে ১০ টন বোঝাই যানবাহন চলাচলের উপযোগী হলেও ঘটনাস্থলে ১০ চাকার পাথর বোঝাই প্রায় ৫০ টন ওজনের দুটি ট্রাক ব্রীজের উপর উঠে যাওয়ায় ব্রীজ ধসের এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। যত দ্রুত সম্ভব উদ্ধার কাজ শুরু করা হবে। তবে বিকল্প পথে যানবহন চালাচলের ব্যবস্থাও করা হয়েছে।   
শালিখা থানার ওসি রেজাউল ইসলাম জানান, সোমবার সকাল ১০টার পরপরই একটি দশ চাকার ট্রাকসহ দুটি ট্রাক ও একটি পিকআপ নিয়ে সীমাখালি ব্রিজের এক পাশ দেবে যায়। এতে ব্রিজের ওপর থাকা এক সাইকেল আরোহীসহ দুইজন আহত হন। তাদের চিকিৎসার জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় কেউ নিহত হয়নি।
ঘটনাস্থল থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলামও একই তথ্য দিয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী সেলিম হোসেন জানান, ব্রিজের পাশেই তার চায়ের দোকান। তিনি হঠাৎ করে প্রচ- শব্দ শুনে ব্রিজের দিকে তাকিয়ে দেখতে পান ধোঁয়া উড়ছে। মুহূর্তেই দুইটি পাথর বোঝাই ট্রাকসহ তিনটি ট্রাক নিয়ে ব্রিজটি ভেঙে পড়ছে বলে তিনি দেখতে পান।
বড় ধরনের দুর্ঘটনা ও পাথর বোঝাই ভারী ট্রাক হওয়ায় উদ্ধার তৎপরতা শুরু করা যায়নি। উদ্ধার কাজের জন্য ক্রেনসহ ভারী যন্ত্রপাতি আনার ব্যবস্থা ছলছে বলে জানান মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম জানান, দুটি ১০ চাকার পাথর বোঝায় প্রায় ৫০ টন ভারি ট্রাক ব্রীজের উপর উঠে পার হওয়ার সময় এ ঘটনা বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে প্রত্যক্ষদর্শীরা। ভারি ক্রেন দিয়ে উদ্ধার তৎপরতা চালানোর জন্য সড়ক বিভাগের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। দ্রুতই উদ্ধার তৎপরতা শুরু হবে বলে সড়ক বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft