দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
যশোরের কামালপুর থেকে রকেট লাঞ্চার গ্রেনেড ও বিপুল পরিমান গুলি উদ্ধার
বিশেষ প্রতিনিধি :
Published : Thursday, 2 February, 2017 at 12:31 AM, Update: 02.02.2017 12:39:58 PM
যশোরের কামালপুর থেকে রকেট লাঞ্চার গ্রেনেড ও বিপুল পরিমান গুলি উদ্ধারযশোরের কামালপুর সতিঘাটায় মাটির নিচ থেকে উদ্ধার হয়েছে রকেট লাঞ্চার, গ্রেনেড ও থ্রি নট থ্রি রাইফেলের বিপুল পরিমান গুলি। ১ ফেব্রুয়ারি সকালে বসতবাড়ি নির্মাণের জন্য মাটি খুঁড়াখুঁড়ির সময় কয়েক শ্রমিক ওই গুলি দেখতে পান। পরে পুলিশে খবর দিলে ঘটনাস্থল কন্ডোন করে পুলিশ তা উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় হৈচৈ পড়ে যায়। ওই গুলি, হাত গ্রেনেড ও রকেট লাঞ্চারের উৎস নিয়েও চলে দিনভর অনুসন্ধান। ওগুলো ১৯৭১ সালে খান সেনাদের ফেলে যাওয়া গুলি বলে পুলিশের ধারণা।
স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, সদর উপজেলার কামালপুর গ্রামের মৃত শামসুল হকের ছেলে সাম্মু হক বসতবাড়ি নির্মাণে শ্রমিক কাজে লাগান। ১ ফেব্রুয়ারি ৫ জন শ্রমিক মাটি খুঁড়াখুঁড়ি শুরু করেন। খুঁড়তে খুঁড়তে খানিক নিচে গেলেই এক মজুর পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় একটি প্যাকেট দেখতে পান। পরে প্যাকেটটি খুলে অনেক গুলি দেখতে পান। এছাড়া ১টি রকেট লাঞ্চার ও একটি হাত গ্রেনেড দেখতে পান তারা। পরে এ খবরটি ঘরের মালিক চারিদিকে প্রচার করেন। খবর পেয়ে কামালপুর ও তার আশপাশের গ্রামের লোকজন ঘটনাস্থলে ভীড় জমান। আর অসংখ্য গোলাবারুদ দেখে হতবাক হন। এখবর জানিয়ে স্থানীয় মেম্বার রাশেদ হোসেন কোতোয়ালী মডেল থানায় ফোন করেন। এরপর অফিসার ইনচার্জের নির্দেশনায় থানার এসআই মোল্লা মিরাজ মোসাদ্দেক ঘটনাস্থলে যান। আর লোকজন সরিয়ে দিয়ে এলাকা ঘিরে ওই গুলি উদ্ধার করেন। গুলিগুলো থ্রি নট থ্রি রাইফেলের গুলি যার সংখ্যা ২শ’৭৯ পিস। শ্রমিকেরা মাটি কাটা ঝুড়ির ভেতরে ওগুলো রেখেছিলেন। গুলির পাশপাশি একটি ৯.৫ ইঞ্চি রকেট লাঞ্চার ও একটি হাত গ্রেনেড থানায় আনা হয়। যশোরের কামালপুর থেকে রকেট লাঞ্চার গ্রেনেড ও বিপুল পরিমান গুলি উদ্ধার
সূত্র আরও জানায়, প্রথমে ওই গুলি উদ্ধারের সময় ঘাবড়ে যান বসত বাড়ির মালিক সাম্মু হক। কোন ঝমেলায় ফেঁসে যান কিনা তা নিয়েও শংকিত হয়ে পড়েন। আর এলাকায় চাউর হলে বিভিন্ন মহল থেকে তথ্য আসতে থাকে ওগুলো কোন অপরাধী চক্রের হতে পারে। আবার কেউ কেউ বলতে থাকেন, কামালপুর সুতিঘাটা এলাকার জামায়াতের লোকজন সেখানে ওগুলো লুকিয়ে রাখতে পারে। ১ ফেব্রুয়ারির দিন থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত আলোচনায় ছিল ওই গুলি উদ্ধারের বিষয়টি।
এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ ইলিয়াস হোসেন পিপিএম এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, রকেট লাঞ্চার হাত গ্রেনেড গুলি উদ্ধারের ঘটনায় থানায় জিডি হয়েছে। ওগুলো ১৯৭১ সালে যুদ্ধের সময় খান সেনা ফেলে গিয়েছিল বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। যা দিনে দিনে মাটি চাপা পড়ে যায়।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft